ফ্রীলেন্সিং কিভাবে শুরু করবেন, ভাবছেন? দেখে নিন গাইডলাইন

By | October 1, 2016 | 595 Views

আসসালামু আলাইকুম, আশা করি আল্লাহর রহমতে সবাই ভালো আছেন। আজ আমি ফ্রীলেন্সিং নিয়ে কিছু কথা বলার জন্য আপনাদের সামনে হাজির হলাম। আসলে ফ্রীলেন্সিং শব্দটা এখন অপরিচিত কোন নাম নয়। একসময় ছিলো যখন মানুষ ফ্রীলেন্সিং কি জিনিস জানতো না। অনলাইনে যে আয় করা যায় এটা মানুষ ভাবতেই পারে নি। কিন্তু আজ সকলেই অনলাইনে আয়ের কথা, ফ্রীলেন্সিং এর কথা সব কিছুই জেনেছে। সবাই এখন এটা জানে যে অনলাইন থেকে আয় করা যায় এমন একটি মাধ্যম হচ্ছে ফ্রীলেন্সিং।

ফ্রীলেন্সিং কিভাবে শুরু করবেনঃ

ফ্রীলেন্সিং কিভাবে করবেন বা কিভাবে শুরু করবেন? এই প্রশ্নটা নতুনদের জন্য ধরে নিতে পারেন হাহাকারের মত কাজ করছে। তাদের মনে প্রচন্ডভাবে যেই জিনিসটা পীড়া দিচ্ছে সেটি হলো যে আমি কিভাবে ফ্রীলেন্সিং শুরু করবো বা আউটসোর্সিং শুরু করবো। আমাকে অনেকেই মেসেজ করে যে ভাই ফ্রিলেন্সিং করতে চাই কিভাবে শুরু করবো? তাদেরকে বেসিক কিছু ধারণা দেওয়ার জন্যই আমার আজকের এই পোস্ট। চলুন ফ্রিলেন্সিং সম্পর্কে আমাদের কি ধারণা একটু পর্যালোচনা করে নেই।

ফ্রিলেন্সিং সম্পর্কে আমাদের ধারণাঃ

আমরা দূর থেকে এই ফ্রীলেন্সিং পেশাটাকে অর্থাৎ অনলাইনে আয়ের পেশাকে যতটা সহজ মনে করছি আসলে এটি ততটা সহজ নয়। যারা আজ এই ফ্রীলেন্সিং পেশায় নিজেকে সাফল্যমন্ডিত করতে পেরেছে তারা বহু পরিশ্রমের বিনিময়ে এই পর্যন্ত আসতে সক্ষম হয়েছে। আপনি তাদের জীবন পর্যালোচনা করলে দেখতে পারবেন যে তারা দিন রাত হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রম করেছেন। সারাক্ষন কম্পিউটার নিয়েই পড়ে থাকতেন। ভালো করে কাজ শিখেছেন তারা। তাদের কারো বছরকে বছর পার হয়ে গেছে সেই স্বপ্নের শিখরে পৌছতে। তাদের এই পরিশ্রমের কারনেই আজ তারা সাফল্যতা অর্জন করতে পেরেছে। কিন্তু দুঃখের বিষয় হলো আমরা অনেকেই মনে করি যে অনলাইন থেকে আয় করা একদমই সহজ। এর জন্য কোন কাজ শিখা লাগবে না। কয়েকটা ক্লিক করব আর পকেটে ডলার জমা হবে।

না ভাই, এত সহজ যদি হতো তাহলে আর আমাদের দেশে আর বেকার থাকতো না। আপনি এটা মনে করবেন না যে আমি আপনাকে অনুৎসাহিত করছি। আসলে মোটেও না। জাস্ট আমাদের অনেকের যে এরকম ধারণা আছে তাদের এই ধারণাগুলো তুলে ধরার চেষ্টা। অবশ্যই আপনি পারবেন। হ্যাঁ, তবে আপনাকে ভালো করে কাজ শিখেই কাজ করতে হবে। এটাই বাস্তব।

আপনার কাছে এখন আমার একটি প্রশ্ন সেটি হচ্ছে আপনি কি পারবেন পরিশ্রম করতে? যদি আপনি পরিশ্রম করে ভালোভাবে কাজ শিখে নিতে পারেন তাহলেই শুধু ফ্রীলেন্সিং আপনার জন্য। আর যারা কাজ না শিখে বা কোনমতে অল্প একটু শিখে ফ্রীলেন্সিং করতে চান তাহলে আমি তাদেরকে বলব কাজ ভালোভাবে না শিখে, ভালো অভিজ্ঞতা অর্জন না করে কোন ফ্রীলেন্সিং মার্কেটে একাউন্ট খুলে নিজের মূল্যবান সময়টুকু নষ্ট করবেন না। কারন কাজ না জেনে আপনি কখনোই ফ্রীলেন্সিং করতে পারবেন না। যদি আপনি কাজ শিখেই কাজ করতে চান তাহলে নিচের লেখাগুলো ভালো করে পড়ে নিন।

ফ্রিলেন্সিং এ কোন ধরনের কাজ করতে চান  আপনি?

আগে আপনি ঠিক করে নেন যে আপনি কি ধরণের কাজ করতে চান ফ্রীলেন্সিং মার্কেটপ্লেসে। সেটা ঠিক করেই কাজ শিখে নেন। ফ্রীলেন্সিং মার্কেটপ্লেসগুলোতে বহু ধরণের কাজ পাওয়া যায়। Web Development থেকে শুরু করে Ms Word, Excel ইত্যাদি সকল ধরণের কাজই এখানে পোস্ট হয়ে থাকে। তবে সবচেয়ে বেশি কাজ পাওয়া যায় Web Development, SEO এবং Graphics Design এর উপরে। আপনি এখান থেকে যেটা পারেন শিখে নিতে পারেন। তবে Web Depelopment এর কাজটা একটু তুলনামূলক কঠিন। যদি আপনার মেধা শক্তি ভালো হয় বা যদি মনে করেন যে কোডিং করতে পারবেন তাহলে শিখে নিতে পারেন। আমি একটু বিস্তারিত বলার চেষ্টা করছি। কারন নতুনদের মাঝে এসব বিষয় নিয়ে খুবই কনফিউশন থাকতে দেখা যায় যে কি শিখব, কি শিখব, কোথায় থেকে শিখবো ইত্যাদি ইত্যাদি। তাই আমি একটু বিস্তারিত বলছি কোন কাজটির কোয়ালিটি কি রকম।

যাইহোক, যদি আপনি মনে করেন যে আপনি কোডিং জগতে ডুকবেন না অর্থাৎ Web Development শিখবেন না তাহলে আপনি SEO এর কাজটি শিখে নিতে পারেন। এটি সবাই চেষ্টা করলে পারবেন। আর যদি আপনি মনে করেন যে ওয়েব ডিজাইনের এর কাজ পারবেন তাহলে তোহ ভালোই। তারপর SEO এর কাজটা শিখুন। আর Graphics Design টি সমপূর্ণ আলাদা একটা সেক্টর। চাইলে আপনি এটাও শিখতে পারেন। মোট কথা আপনি যে কাজটা করতে পারবেন বা যে কাজটি আপনার কাছে সহজ মনে হয় সেই কাজটাই শিখুন। সবগুলো একসাথে শিখতে গেলে কোনটাই হবে না। এ কুল ঐ কুল সব কুলই পরে হারাবেন। তবে এখানে সবচাইতে সহজ কাজগুলোর মধ্যে হচ্ছে SEO. যার পূর্ণ নাম হচ্ছে সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন। ধৈর্য নিয়ে শিখার চেষ্টা করুন। আশা করি আপনি সাফল্য অর্জন করতে পারবেন। SEO এর কাজ জানা থাকলে আপনি আপনার এই ওয়েবসাইট দিয়েই আয় করতে পারবেন। যাই হোক সেদিকে এখন যাচ্ছি না। সুযোগ হলে সেটি নিয়ে আলাদা একটি পোস্ট করব ইনশাআল্লাহ।

ফ্রিলেন্সিং করার জন্য কাজ কিভাবে শিখবেন কোথায় শিখবেন?

এখন প্রশ্ন হচ্ছে এই কাজগুলো কিভাবে শিখবেন বা কোথায় শিখবেন। বর্তমান যুগে এখন আর কাজ শিখা নিয়ে তেমন একটা চিন্তা করতে হয় না। কারন সব কিছুই এখন গুগলের সাহায্য নিয়ে শিখা সম্ভব যদি আপনি সঠিক তথ্য খুজে বের করে নিতে পারেন। আর ইউটিউব তোহ আছেই। আপনি সবচাইতে বড় হেল্প পেতে পারেন ইউটিউবের মাধ্যমে। আমরা অনেকেই জানি না যে গুগল আমাদের কী পরিমাণ হেল্প করতে প্রস্তুত। আপনি কি জানতে চান সেটি লিখে সার্চ করুন। আশা করা যায় গুগল আপনাকে খালি হাতে ফিরাবে না। যাই হোক আপনি কী শিখতে চান? যা কিছুই শিখতে চান না কেন তাঁর সবটাই এখন ইউটিউবে পাবেন। সেজন্য আমার সাজেশন হলো যেহেতু কোর্স করে শিখতে প্রচুর টাকার প্রয়োজন সেহেতু আপনি ইনটারনেট থেকে ভিডিও টিটোরিয়াল সংগ্রহ করে শিখে নিতে পারেন। আর সেজন্য আপনি ভালো ফল পেতে পারেন ইউটিউবের মাধ্যমে।

ভিডিও টিউটরিয়াল কিনেও শিখে নিতে পারেন। অনেক প্রতিষ্ঠান আছে যারা ভিডিও টিউটোরিয়াল বিক্রি করেন। যেমন আইটি বাড়ি  তাদের মধ্যে অন্যতম। বিগিনারদের জন্য তাদের টিউটোরিয়াল গুলো অনেক সেরা। আপনি চাইলে তাদের লিঙ্কে গিয়ে টিউটোরিয়াল কিনে শিখে নিতে পারেন। আর যদি মনে করেন যে না আমি কোন প্রতিষ্ঠানে গিয়ে শিখবো তাও শিখতে পারেন। এগুলো সম্পূর্ণই আপনার ইচ্ছার উপর। আমি শুধু আপনাকে প্রসেসটা বলে দিচ্ছি।

ফ্রিলেন্সিং কোথায় করবেন?

ফ্রিলেন্সিং করার জন্য সবচেয়ে পাওয়ারফুল মার্কেটপ্লেস হচ্ছে Upwork ও  Freelancer. তবে Upwork  ইদানিং বাংলাদেশি প্রোফাইল গ্রহণ করছে না। তারা বলে দিয়েছে যে বাংলাদেশি নতুন ফ্রীলেন্সার তাদের লাগবে না। কিন্তু তারপরেও অনেকে অনেকভাবে দেশের নাম পরিবর্তন করে এপ্রুভ করানোর চেষ্টা করছে। যদিও এরকমভাবে এপ্রুভ করালে ভ্যান খাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এখন আপনি একটু চিন্তা করে দেখুন Upwork কেন এমন একটা সিদ্ধান্ত নিল। অবশ্যই বাংলাদেশিদের প্রতি Upwork সন্তুষ্ট হতে পারে নি। কারন নতুনদের কিছু ভুলের কারনেই আজ হয়তো এরকম মাশুল দিতে হচ্ছে নতুন ফ্রীলেন্সারদের। কারন সবারই কাজ শিখে এরকম একটি ১ নম্বর পাওয়ারফুল মার্কেটপ্লেসে কাজ করার ইচ্ছা থাকে। কিন্তু এখন ইচ্ছা থাকলেও সম্ভব হচ্ছে না।

তাই বলে কি আমরা কাজ করতে পারবো না? অবশ্যই পারবো। Freelacer.com আপনার জন্য খোলা আছে। আসলে কাজ কোথায় করবেন এটা আহামরি কোন চিন্তার বিষয় নয়। দক্ষ হতে পারলে কাজের জায়গার অভাব নেই। আমরা সবাই জানি দক্ষরা কখনোই কাজের পিছনে দৌড়ায় না, কাজ দক্ষদের পিছনে দৌড়ায়। এটাই বাস্তব। কিন্তু আমাদের সমস্যা হচ্ছে আমরা দক্ষতা অর্জন ছাড়াই কাজ খোজা শুরু করি। ফলে আমরা সফল হতে পারি না। নিচে আরো কয়েকটি মার্কেটপ্লেসের নাম দেওয়া হলোঃ

Guru, 99designs, Peopleperhour, GetACoder, iFreelance ইত্যাদি।

আপনি গুগলে সার্চ দিলে আরো হিউজ পরিমানে কালেকশন করতে পারবেন। তবে আমি মনে করি একটি মার্কেটপ্লেসের সাথে লেগে থেকেই কাজ করা ভালো। সে জন্য আপনি Upwork এর স্থানে Freelancer কেই বেছে নিতে পারেন।

আশা করি নতুনরা ফ্রীলেন্সিং সম্পর্কে কিছুটা হলেও ধারণা পেয়েছেন। আমার বুঝাতে গিয়ে যদি কারো মনে কষ্ট এসে থাকে তাহলে অবশ্যই আমাকে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। আসলে কাউকে কষ্ট দেওয়া আমার উদ্দেশ্য নয়। বাস্তব কথাগুলো বলার চেষ্টা করেছি।

Freelancer.com এ কিভাবে একাউন্ট খুলবেন এবং কিভাবে বিড করবেন সেসব বিষয় নিয়ে আলাদা একটি পোস্ট হবে ইনশাআল্লাহ। সেজন্য আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে রাখুন এবং ফেইসবুক গ্রুপে আজই জয়েন হয়ে যান। যাতে করে আমাদের নতুন সকল পোস্টের সন্ধান আপনি পেতে পারেন।

আমাদের ফেইসবুক পেইজের লিঙ্ক এখানে ।

আমাদের ফেইসবুক গ্রুপের লিঙ্ক এখানে ।

পোস্টটি ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই শেয়ার করতে ভুলবেন না। নিজে জানুন এবং অপরকে জানান। সবাই ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন, এই কামনায় – আল্লাহ হাফেজ।

Iqbal Hossain Sujan

Iqbal Hossain Sujan

SEO Analyzer at Freelancer
নিজের ব্যাপারে তেমন কিছু বলার নেই। বর্তমানে BBA পড়ছি এবং পাশাপাশি SEO এর উপর কাজ করছি Freelancer.com এ। আমি ব্যক্তিগতভাবে নতুন কিছু শিখতে অনেক আগ্রহী। তাইতো দিন রাত অনলাইনেই সময় কাটে। নিজে কিছু শিখে অন্যকে শিখানোর মাঝেই যে অনেক ভালো লাগে।
Iqbal Hossain Sujan

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *